সোমবার, ২৩ জুলাই, ২০০৭

ভোট স্মৃতি

ভোট দেবার বয়স হবার পর প্রথম ভোট দেবার সুযোগ পাই ৯৬ এর সাধারন নির্বাচনে। তখন থাকতাম ঢাকার এলিফ্যান্ট রোডে । বাসার কাছেই ঢাকা কলেজে ছিলো ভোট সেন্টার।

আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সরাসুরি যুক্ত না থাকলেও নিরব সমর্থক সবসময়ই। এ সমর্থন যতোটুকু দলগতভাবে তার চাইতে আদর্শগত। হাজি মকবুল ইসলাম ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী। ব্যক্তিগত ভাবে তার সম্পর্কে ভালো ধারনা না থাকলেও তাকে ভোট দিয়েছিলাম শুধু আওয়ামী লীগ করার কারনে। ভোট দেবার একমাত্র উদ্দেশ্য ছিলো আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় দেখা, মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ পূনঃপ্রতিস্ঠা করা। তবে সেটা হয়েছিলো সেটা অন্য প্রসংগ।

২০০১ এর সাধারন নির্বাচনের সময় বাসা ছিলো উত্তরা । সেবারো ভোট দিয়েছিলাম আওয়ামী লীগে। সেটা অন্ধভাবেই। ঠিক অন্ধভাবে বল্লে ভুল হবে। উদ্দেশ্য ছিলো আওয়ামী লীগকে আরো একবার সুযোগ করে দেয়া ও বিএনপি-জামাতের অশুভ জোটকে প্রতিহত করা। আমার সে স্বপ্ন সফল হয়নি।

এখন ২০০৭ সাল। এবার নির্বাচন হয়নি। কবে হবে বা আদৌ হবে কিনা সেটা বলা মুশকিল।

ভোট হলে কোন দলে বা কোন ব্যক্তিকে ভোট দিবো এবার সেটা ভাবার বিষয়। প্রথম ও দ্বিতীয়বার ভোট দেবার সময় যুক্তির চাইতে আবেগ কাজ করেছিলো বেশী, তবে নিশ্চিত ভাবে এবার সেটা হবে না। দলীয় আদর্শের চাইতে দেশ বড় সবসময়ই। এটাই কাজ করবে। যে দল সমর্থন করছি সে দল তার দলীয় আদর্শ কতটুকু ফলো করছে সেটাও দেখার বিষয়। মুখে আদর্শের কথা বলবে আর কাজে-কর্মে সেই আদর্শের প্রতিফলন দেখা যাবে না তা তো হতেই পারে না।

একটা পরিবর্তন দরকার এখনই। সারা পৃথিবী এগিয়ে যাচ্ছে আমরা যে এগিয়ে যাওয়া চেয়ে দেখবো সেটা হতে পারে না। পরিবর্তি প্রজন্মের কাছে কি উত্তর দেবো আমি বা আমরা ? !

1 টি মন্তব্য :

  1. আমি প্রকৃতপক্ষে আশাভরসা সব ছেড়ে দিয়ে বসে আছি। এখন আর মনে হয় না এদেশের কোন ভবিষ্যত আছে। দ্রব্যমূল্যের যে অসহনীয় অবস্থা - আনবিলিভিবল! অবশ্য মাঝেমাঝে বড় অপটিস্টিক মনে হয়। সাত সকালে যখন খালি রাস্তায়, সবুজ বাতাসের গন্ধ পাই, অথবা মানুষগুলো দেখে যখন মনে পড়ে বাবার কথা, মায়ের কথা, ভাইয়ের কথা, নিজেকে ধাক্কা দিয়ে আশাবাদী হতে উৎসাহ দেয়। কিন্তু ঐ পর্যন্তই, তারপরে আবার হারিয়ে যাই। বুদ হয়ে থাকি।

    উত্তর দিনমুছুন

আপনার মন্তব্য পেলে খুশি হবো, সে যত তিক্তই হোক না কেনো।
পোস্টে মন্তব্যের দায়-দায়িত্ব একান্তই মন্তব্যকারীর। মন্তব্য মডারেশন আমি করি না, তবে অগ্রহনযোগ্য ( আমার বিবেচনায় ) কোনো মন্তব্য আসলে তা মুছে দেয়া হবে সহাস্য চিত্তে।