রবিবার, ১৭ জুন, ২০০৭

স্মোক ডিটেক্টর

গত পরশু থেকে বেড রুমে স্কোক ডিটেক্টর লাগানো হয়েছে।
আমার অবস্থা কেরোসিন ।
রাতে ঘুমানোর আগে ছাদের দিকে তাকিয়া তাকিয়ে ধূমপানকে মনে হয় এবার জাদুঘরে পাঠাতে হবে !
কি জ্বালা ...প্রতি রাতে ঘুমাতে যাবার আগে একখান বিড়ি ধরাই, তারপর হালকা একটা মিউজিক ছেড়ে ঘুমোতে যাই। মাঝে মাঝে কোরআন তেলাওয়াত শুনি । কিন্তু এবার সবই থাকবে , শুধুথাকবে না আমার শখের সিগারেট।

স্মোক ডিটেক্টর লাগাতে আইনগত বাধ্যবাধকতা থাকলেও আমার এপার্টমেন্ট সেটা থেকে মুক্ত, মানে অনুমতি নেয়া আছে।
কিন্তু আমার বসের অত্যাচারে আমি অতিষ্ট। তাকে আমি ভয় ও পাই , ভালোও বাসি।
বিদেশ বিভূয়ে মাতৃ স্নেহের অন্য রুপ। আমি যাতে সিগারেট কম খাই সেজন্য তার এরকম উৎপাত।
আর ভালো লাগে না। শালার চাকুরি ছেড়েই দেবো কন্ট্রাক্ট শেষ হবার পর।
-------------
সিরিয়াস পোস্ট না, অবশ্য আমি সিরিয়াস পোস্ট লিখতেও পারি না।
২০০৭-০৩-১১ ১০:০২:০২
____________________________________________________________

৪টি মন্তব্য :

  1. আরে লেখার সঙ্গে দেখি ছানাপোনা- মন্তôব্যও নিয়ে এসেছেন! ক্যমনে কী!

    উত্তর দিনমুছুন
  2. আরে লেখার সঙ্গে দেখি ছানাপোনা- মন্তব্যও নিয়ে এসেছেন! ক্যমনে কী!

    উত্তর দিনমুছুন
  3. লেখার সাথে কমেন্টাকারে সব স্মৃতি নিয়ে আসছি আমি। এইটাই মাজেজা @ পোকামানব শুভ ভাই।

    উত্তর দিনমুছুন
  4. হে হে হে...সুমন ভাই ১৭ বছর পরে আরেকবার চেষ্টা করেন/ এই বার আবস্যই পারবেন/ ভাবি কিছু বলে না?

    উত্তর দিনমুছুন

আপনার মন্তব্য পেলে খুশি হবো, সে যত তিক্তই হোক না কেনো।
পোস্টে মন্তব্যের দায়-দায়িত্ব একান্তই মন্তব্যকারীর। মন্তব্য মডারেশন আমি করি না, তবে অগ্রহনযোগ্য ( আমার বিবেচনায় ) কোনো মন্তব্য আসলে তা মুছে দেয়া হবে সহাস্য চিত্তে।